মঙ্গলবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৩

তাওবা কার জন্য, কখন ও কীভাবে

মঙ্গলবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৩
অনেকের মাঝে ভুল ধারণা আছে সারা জীবন অপরাধ করে যাই। মৃত্যুর আগে তাওবা করে নিলেই চলবে। অনেকে আবার এ ধারণা পোষণ করেন যে আর কিছু দিন পর ভাল হয়ে যাব। কিন্তু একজন সত্যিকার মুসলিমের কর্মকান্ড এ ধরণের হতে পারে না। আল্লাহ সুরা নিসায় বলছেন-
إِنَّمَا التَّوْبَةُ عَلَى اللَّـهِ لِلَّذِينَ يَعْمَلُونَ السُّوءَ بِجَهَالَةٍ ثُمَّ يَتُوبُونَ مِن قَرِ‌يبٍ فَأُولَـٰئِكَ يَتُوبُ اللَّـهُ 
عَلَيْهِمْ ۗ وَكَانَ اللَّـهُ عَلِيمًا حَكِيمًا
                  "তবে একথা জেনে রাখো, আল্লাহর কাছে তাওবা কবুল হবার অধিকার এক মাত্র তারাই লাভ করে যারা অজ্ঞতার কারণে কোন খারাপকাজ করে বসে এবং তারপর অতি দ্রুত তাওবা করে। এ ধরনের লোকদের প্রতি আল্লাহ আবার তাঁর অনুগ্রহের দৃষ্টি নিবদ্ধ করেন এবং আল্লাহ‌ সমস্ত বিষয়ের খবর রাখেন, তিনি জ্ঞানী ও সর্বজ্ঞ। " (সূরা নিসা, ৪:১৭)
এরপর বলছেন-
وَلَيْسَتِ التَّوْبَةُ لِلَّذِينَ يَعْمَلُونَ السَّيِّئَاتِ حَتَّىٰ إِذَا حَضَرَ‌ أَحَدَهُمُ الْمَوْتُ قَالَ إِنِّي تُبْتُ الْآنَ وَلَا الَّذِينَ يَمُوتُونَ وَهُمْ كُفَّارٌ‌ ۚ أُولَـٰئِكَ أَعْتَدْنَا لَهُمْ عَذَابًا أَلِيمًا
”কিন্তু তাওবা তাদের জন্য নয়, যারা খারাপ কাজ করে যেতেই থাকে, এমন কি তাদের কারো মৃত্যুর সময় এসে গেলে সে বলে, এখন আমি তাওবা করলাম। অনুরূপভাবে তাওবা তাদের জন্যও নয় যারা মৃত্যুর সময় পর্যন্ত কাফের থাকে। এমন সব লোকদের জন্য তো আমি যন্ত্রণাদায়ক শাস্তি তৈরী করে রেখেছি।”
এ থেকে যে উপসংহার টানা যায় তা হলো-
তাওবা কবুল হবার হক এমন ব্যক্তির আছে যে
১.  ভুলবশত অপরাধ করে এবং 
২. সাথে সাথেই অপরাধ স্বীকার স্বীকার করে তাওবা করে ফেলে।

0 মন্তব্য(গুলি):

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন